Search Any Post Of WizBD.Com
 HomeSEO Tricksকিভাবে এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল করবেন যেকোন ওয়েবসাইট এ | how to write a SEO friendly article

কিভাবে এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল করবেন যেকোন ওয়েবসাইট এ | how to write a SEO friendly article

আসসালামু আলাইকুম

আশা করি সবাই ভালো আছেন
সবাই ভালো থাকেন ভালো রাখেন এই প্রত্যাশাই করি সব সময়।
তো আজ আমি আপনাদের সাথে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে যাচ্ছি সেই বিষয়টি হচ্ছে আপনি কিভাবে একটি এসইও ফ্রেন্ডলি পোস্ট করতে পারেন।
তো এসইও ফ্রেন্ডলি পোষ্ট লিখার জন্য আপনাকে প্রথমে একটি নির্দিষ্ট বিষয় সিলেক্ট করতে হবে যে বিষয়ের উপর আপনি জানেন বা দক্ষ বা মোটামুটি দক্ষ।
আপনি যে বিষয় নিয়ে পোষ্ট করবেন প্রথমে সেই বিষটি গুগলে সার্চ করুণ ও দেখুন আপনার আগে কেউ কী এই বিষয়ের উপর পোষ্ট করেছে কী না। যদি পোষ্ট না করে থাকে তাহলে আর কোন কথাই নেই আপনি যেভাবে পোষ্ট করবেন সেভাবেই গুগল সার্চে টপ রেজাল্টে আসবে। আর যদি থাকে তাহলে দেখুন সেই টপিকের মাসিক সার্চ ভলিউম কত?
আপনার এমন বিষয় সিলেক্ট করতে হবে (যদি এর আগে গুগলে থাকে) যে বিষয়ের উপর গুগলে বেশি সার্চ হয় কিন্তু সেই বিষয়ে প্রতিযোগিতা কম। এখানে প্রতিযোগিতা বলতে আমি বুঝাতে চাচ্ছি এর আগে এর আগে যারা এই বিষয়ে পোষ্ট করেছে তাদের পোষ্ট এসইও ফ্রেন্ডলি না।
যরি তাদের পোষ্ট এসইও ফ্রেন্ডলি না থাকে তাহলে আপনি খুব সহজেই রেঙ্কিং এ আসতে পারবেন।
আর আগেই বলে রাখি এসইও কিন্তু ধৈর্যের ব্যাপার। কখনও ১ মাস আবার কখনও কয়েক মাসও লাগতে পাবে।
আর আজ আমি যে পোষ্ট করছি এই পোষ্টটি আমি শুধু কিভাবে উইজবিডি বা অন্যান্য সাইটে পোষ্ট করতে কাজে আসবে। আপনি যদি কোন ওয়েবসাইট এর জন্য এসইও করতে চান তাহলে অনেক কাজ করতে হবে সাথে অনেক দিন অপেক্ষা করতে হবে। কারণ আগেই বলেছি এসইও ধৈর্যের বিষয়।

এসইও ফ্রেন্ডলি পোষ্ট লেখার জন্য আপনাকে অবশ্যই অনেক বেশি ওয়ার্ডের পোষ্ট করতে হবে। যদি এর আগে কোন আর্টিকেল থাকে আপনার সিলেক্টকৃত বিষয়ের উপর তাহলে আগে সেই পোষ্টটি পড়ুন ও সে কত ওয়ার্ডের পোষ্ট করেছে তা দেখুন। সে যত ওয়ার্ডের পোষ্ট করেছে তার থেকে ৫০-১০০ ওয়ার্ড বেশি বা আরো বেশি বড় করে আপনার পোষ্ট লিখার চেষ্টা করুণ।
পোষ্টের সাথে সম্পৃক্ত ইমেজ যদি দিতে হয় তাহলে সেই ইমেইজের একটি টাইটেল দিন আপনার ফটোটি যে বিষয়ের উপর সেই বিষয়ের টাইটেল বা আপনার পোষ্টটি যে বিষয়ের সেই বিষয়ের ইমেজ টাইটেল দেওয়ার চেষ্টা করুণ। আর পোষ্টে পারলে আপনার অন্যান্য পোষ্টের লিংকআপ করুণ আর অনে রাখবেন সেই লিংকআপ করানো পোষ্টটি যাতে অবশ্যই আপনার নতুন পোষ্টের সাথে সম্পর্কযুক্ত হতে হবে।
অনেকে ফটো দেওয়ার জন্য img=img code ব্যবহার করে থাকেন কিন্তু img code এর চেয়ে html কোড এর বেশি কার্যকারী।
এর এক জলন্ত উদাহরণ হচ্ছে উইকিপিডিয়া। আপনি উইকিপিডিয়া তে গেলে দেখবেন তাদের একটি আর্টিকেল এর সাথে অনেক অনেক আর্টিকেল এর লিংক আপ করানো।
আর শুধু যে আপনার পোষ্টগুলো লিংক আপ করাবেন তা কিন্তু নয়। যদি আপনার চেয়ে আরো ভালো কেউ কোন পোষ্ট করে থাকে তাহলে পোষ্টের শেষে আরো জানার জন্য এখানে ক্লিক করে আরেকটি আর্টিকেল পড়তে পারেন। এখন আপনি বলতে পারেন এই লিংক আপ করলে তো আমার পোষ্ট কেউ পড়বে না। আরে ভাই যদি আপনার পোষ্ট থেকে কোন মানুষ অন্য কোন পোষ্টে বা কোন ওয়েবসাইট এ যায় তাহলে গুগল আপনার পোষ্টটি বা ওয়েবসাইট টি ভালো চোখে দেখবে, এতে করে আপনার ওয়েবসাইট বা পোষ্ট এর রেঙ্কিং গুগলের কাছে টপ এ থাকবে।
পোষ্টের সাথে তো আবশ্যই লিংক যুক্ত থাকবে তাই না।

তাহলে কিভাবে প্রপারলি পোষ্টে লিংক যুক্ত করবেন

লিংক দেওয়ার সময় অবশ্যই খেয়াল রাখবে যাতে আপনার লিংকও target=”_blak” থাকে। মানে কোন লিংক এ কেউ ক্লিক করলে নতুন একটি ট্যাব ওপেন হবে ব্রাইজারে এবং সেই ট্যাব এ গিয়ে নতুন লিংকটি ওপেন হবে।
আর ফটো দেওয়ার সময় title=”হাবি জাবি” এরকম করে ফোটো টাইটেল দিবেন।
এগুলোকে বলে লিংক অপটিমাইজেশন ও ফোটো অপটিমাইজেশন।


এখন বলি কিভাবে header দিবেন।
এসইও এর জন্য সবচেয়ে ভালো হেডার হচ্ছে h2 হেডার।

লিংক যুক্ত আর্টিকেল

আপনি যখন আর্টিকেল লিখবেন তখন অনেক শব্দ পাবেন যে শব্দ নিয়েও গুগলে আর্টকেল আছে। তো সেই শব্দের সাথে আপনি লিংক যুক্ত করতে পারেন।
আমি আরো খুলে বলছি!
আপনি যদি উইজবিডি লিখেন আপনার পোষ্টে তাহলে উইজবিডি তে কেউ ক্লিক করলে যেন উইজবিডি ওয়েবসাইট এ চলে যায় এমন ভাবে লিংক যুক্ত করতে হবে। অথবা যদি কোন অ্যাপ এর নাম লিখেন তাহলে সেই অ্যাপ এর নামের উপর কেউ ক্লিক করলে যেন সরাসরি সেই অ্যাপ ডাউনলোড করার জন্য যে পেজ আছে সেই পেইজে চলে যায়।
অনেকে লিংক দেওয়ার জন্য bb code ব্যবহার করে থাকেন কিন্তু bb code এর চেয়ে html কোড বেশি কার্যকারী।
অ্যাপ এর ক্ষেত্রে বেশিরভাগ প্লে স্টরের লিংক যুক্ত করা হয়।
তার ফলে আপনি ঐ ওয়েবসাইট ও আপনার ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক পাবে ও ব্যাকলিংক দেওয়া ওয়েবসাইট মানে আপনার ওয়েবসাইট গুগলে কাছে একটি টপ ওয়েবসাইট হিসেবে গণ্য হবে।


এখন কথা বলি পোষ্ট টাইটেল ও মেটা ডেসক্রিপশন নিয়ে।

টাইটেল অপটিমাইজেশন

টাইটেল অপটিমাইজেশন মানে হচ্ছে টাইটেল এর মধ্যে আপনার keyword রাখা।
মানে আপনি যদি top 5 android app নিয়ে কোন পোষ্ট করেন তাহলে আপনার টাইটেল এ top 5 android app লেখাটি উল্লেখ থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তার মানে আপনি যে বিষয়ে পোষ্ট করবে সেই বিষটি যেন আপনার টাইটেলএ উল্লেখ থাকে ও আপনার টাইটেলটি সবসময় আপডেটের রাখার চেষ্টা করবেন মানে টাইটেল এর শেষে fully updated বা 2018 বা 2019 এই কথা গুলো দেওয়ার চেষ্টা করবেন। তার মানে আপনার টাইটল টি এমন হবে:
top 5 best android app 2018।
আর যদি আপডেটেড কোন টাইটেল দিতে হবে তাহলে এমন হবে:
how to write a SEO friendly article (fully updated 2018)
সবাই চায় সবসময় আপডেটেড ভার্সন।
তাই আপনি যখন আপনার টাইটেল এ fully updated 2018 কথা টি লিখবেন তখন ভিজিটকারী সহজেউ বুঝতে পারবে এই আর্টিকেল টি ২০১৮ ও সম্পূর্ণ আপডেটেড। তাই আপনার আর্টিকেল পড়ার চান্স ও বেড়ে যাবে মানে গুগলে আপনার পোষ্টে অন্য আর্টিকেল এর চেয়ে ক্লিক বেশি পড়বে।
আর যখন আপনার পোষ্টে ক্লিক বেশি পরবে তখন এমনিতেই আপনার পোষ্টটি গুগলে সার্চ রেজাল্টে টপ রেঙ্কিং এ আসবে।
এবং চেষ্টা করবে টাইটেল যত সম্ভব এট্রাক্টিভ ও ছোট রাখার। আর ছোট মানে এমন নায় যে পোষ্টটি কী সম্পর্কে তা টাইটেল এ উল্লেখ থাকবে না।
ছোট টাইটেল এসইও এর জন্য বেশি উপযোগী ও বড় আর্টিকেল গুগল বেশি প্রাধান্য দেয়।

b tag and strong tag

আমরা লিখা গাঢ় করার জন্য অনেক সময় b ট্যাগ ব্যবহার করে থাকি।
কিন্তু আপনি কী জানে b ট্যাগ এর চেয়ে strong ট্যাগ লিখা গাঢ় করার জন্য বেশি কার্যকারী (মানে এসইও এর জন্য বেশি কার্যকারী)।

মেটা ডেসক্রিপশন

মেটা ডেসক্রিপশন হচ্ছে আপনার আপনার পোষ্টের প্রথম কিছু লাইন। মানে আপনি যখন কোনকিছু গুগলে সার্চ করেন তখন দেখবে যে প্রথমে টাইটেল থাকে ও টাইটেল এর নিচে কিছু কথা লিখা থাকে যেটাকে বলে ডেসক্রিপশন। আরো ক্লিয়ার করার জন্য নিচের স্ক্রিনশট

মেটা ডেসক্রিপশন দেওয়ার সময় খেয়াল রাখবে যাবে আপনার পোষ্টের বিষয় ডেসক্রিপশন এ উল্লেখ থাকে। আমরা পোষ্ট লিখার সময় প্রথমে আসসালামু আলাইকুম।
সবাই কেমন আছে ইত্যাদি ইত্যাদি লিখে থাকি। কিন্তু গুগল আপনি সালাম করেছেন কি না সেটা দেখবে না দেখবে আপনার পোষ্ট টি কেমন, আপনার টাইটল কেমন, আপনার ডেসক্রিপশন কেমন ইত্যাদি।
তাই চেষ্টা করবেন যাবে আপনার মূল keyword টি ডেসক্রিপশন এ থাকে।
আর অনেকেই বলে থাকেন যে পোষ্টে কয়েক লাইন পর পর আপনার keyword উল্লেখ করতে। কিন্তু সেটা একেবারে ভুল কারণ আপনি অনেক লাইন পর পর মূল keyword
দেওয়ার ফলে যে পোষ্টটি পড়বে সে বিরক্ত হবে তাই আপনার যেভাবে লিখলে পোষ্টটি সুন্দর ও পাঠক বুঝতে পারে সেরকম পোষ্ট করবে এতে যদি প্রতি লাইনে একবার keyword লিখার প্রয়োজন হয় তাহলে সেটাই করবেন। মানে মোট কথাই যেভাবে পোষ্ট লিখলে পাঠকের সুবিধা হয় সেভাবে পোষ্ট লিখবেন।


এসইও সম্পর্কিত অন্যান্য কিছু কথা

আপনার লিখা পোষ্ট টি অবশ্যই সম্পূর্ণ বিস্তারিত লিখা থাকতে হবে তা আপনি যে বিষয়েই পোষ্ট করেন না কেন।
যাতে করে কেউ আপনার পোষ্ট পড়ে সবকিছু বিস্তারিত জানতে পারে। আর সবচেয়ে বড় বিষয় কোনওসময় ভুয়া পোষ্ট করবেন না।
ভুয়া পোষ্ট করলে পাঠক আপনার পোষ্টি হয়ত পড়ে কাজ করবে কিন্তু যখন দেখবে তার লস হয়েছে তখনার কোনওসময় আপনার ওয়েবসাইট এ আসবে না বা আপনার পোষ্ট পড়বে না এবং অন্যকেও বলবে আপনার ভুয়া আর্টিকেল এর কথা।
তার ফলে স্বাভাবিক ভাবে আপনার পোষ্ট নেগেটিভ রেঙ্ক পাবে।
আর আপনি পাঠককে আপনার পোষ্ট এ কত সময় রাখতে পেরেছেন সেটা দেখে গুগল। আপনি যত বেশি সময় পাঠকে ধরে রাখতে পারবেন গুগলের কাছে তত প্রাধান্য পাবেন।
আর সবসময় চাইবেন ইউনিক পোষ্ট করার।
কোনসময় কপি পোষ্ট করবেন না কারণ কপি পোষ্ট করলে গুগল কোনওসময় আপনার পোষ্টকে রেঙ্কিং এ আসবে না।
আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আমি বাদ দিয়ে দিছি।
সেটা হচ্ছে social share। পোষ্ট করার পর চেষ্টা করবেন আপনার পোষ্টগুলো আপনার ফেসবুক পেইজে, টুইটারে, গুগল প্লাসে, পিন্টারেস্ট এ, এরকম কিছু Social সাইটে শেয়ার করার। তার ফলে ফ্রিতে কিছু মানুষ আপনার ওয়েবসাইট এ ভিজিট করতে পারবে।
তো আর কিছু লিখতে পারব না কারন এনেক লিখে ফেলেছি। আমি কোন পেশাদার আর্টিকেল রাইটার না তাই এত বড় পোষ্ট আমার জীবনে করি নি।
তো এরকম পোষ্ট করলে আশাকরি আপনার পোষ্টটি এসইও ফ্রেন্ডলি হবে।
আর আমি কোন এসইও এক্সপার্ট না তাই অনেক কিছু মারও ভুল থাকতে পারে। তাই কোন ভুল থাকলে ক্ষমা করবেন। আর এই পোষ্টে অনেক ত্রুটি থাকতে পারে তাই কোন ত্রুটি থাকলে তা রিকভার করে করে আরেকটা পোষ্ট করার চেষ্টা করব।


আজকের মতো এই পর্যন্ত।
সবাই ভালো থাকেন সুস্থ থাকেন আল্লাহ হাফেজ 🙂

11 months ago (11:42 am) 1370 views
Report

About Author (673)

JS Masud
Administrator

Quran is only medicine of heart. and remember Allah is very powerful.

 

3 responses to “কিভাবে এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল করবেন যেকোন ওয়েবসাইট এ | how to write a SEO friendly article”

  1. Rakib kha
    Author
    says:

    কিভাবে আপনার মোবাইল কে Super fast করবেন?
    বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন।
    https://newbanglatricks.blogspot.com/2018/11/bangla-android-tips-and-tricks-new-bangla-tech-tips-and-tricks.html?m=1

Leave a Reply

You must be Logged in to post comment.

Related Posts

Copyright © WizBD.Com, 2018-2019