Search Any Post Of WizBD.Com
 HomeIslamic Postজুম্মার নামাজ শুক্রবার হলো কেনো!

জুম্মার নামাজ শুক্রবার হলো কেনো!

জুমআর নামায প্রত্যেক সাবালক জ্ঞান-
সম্পন্ন পুরুষের জন্য জামাআত
সহকারে ফরয।
মহান আল্লাহ বলেন,
( ﻳَﺎ ﺃَﻳُّﻬَﺎ ﺍﻟَّﺬِﻳْﻦَ ﺁﻣَﻨُﻮْﺍ ﺇِﺫَﺍ ﻧُﻮْﺩِﻱَ ﻟِﻠﺼَّﻼَﺓِ ﻣِﻦْ
ﻳَّﻮْﻡِ ﺍﻟْﺠُﻤُﻌَﺔِ ﻓَﺎﺳْﻌَﻮْﺍ ﺇِﻟَﻰ ﺫِﻛْﺮِ ﺍﻟﻠﻪِ ﻭَﺫَﺭُﻭﺍ
ﺍﻟْﺒَﻴْﻊَ، ﺫَﻟِﻜُﻢْ ﺧَﻴْﺮٌ ﻟَّﻜُﻢْ ﺇِﻥْ ﻛُﻨْﺘُﻢْ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮْﻥَ )
অর্থাৎ, হে ঈমানদারগণ! যখন জুমআর দিন
নামাযের জন্য আহবান করা হবে, তখন
তোমরা সত্বর আল্লাহর স্মরণের
জন্য উপস্থিত হও এবং ক্রয়-বিক্রয় বর্জন
কর। এটিই তোমাদের জন্য কল্যাণকর,
যদি তোমরা উপলব্ধি কর। (কুরআন
মাজীদ ৬২/৯)
মহানবী (সাঃ) বলেন, “দুনিয়াতে
আমাদের আসার সময় সকল জাতির পরে।
কিন্তু কিয়ামতের দিন আমরা সকলের
অগ্রবর্তী। (সকলের আগে
আমাদের হিসাব-নিকাশ হবে।) অবশ্য
আমাদের পূর্বে ওদেরকে (ইয়াহুদী
ও নাসারাকে) কিতাব দেওয়া হয়েছে।
আমরা কিতাব পেয়েছি ওদের পরে।
এই (জুমআর) দিনের তা’যীম ওদের
উপর ফরয করা হয়েছিল। কিন্তু ওরা
তাতে মতভেদ করে বসল।
পক্ষান্তরে আল্লাহ আমাদেরকে
তাতে একমত হওয়ার তওফীক দান
করেছেন। সুতরাং সকল মানুষ আমাদের
থেকে পশ্চাতে। ইয়াহুদী আগামী
দিন (শনিবার)কে তা’যীম করে (জুমআর
দিন বলে মানে) এবং নাসারা করে তার
পরের দিন (রবিবার)কে।” (বুখারী,
মুসলিম, মিশকাত)
মহানবী (সাঃ) বলেন, “প্রত্যেক
সাবালক পুরুষের জন্য জুমআয় উপস্থিত
হওয়া ওয়াজেব।” (নাসাঈ, সুনান ১৩৭১নং)
হযরত ইবনে মসউদ (রাঃ) কর্তৃক বর্ণিত,
নবী (সাঃ) বলেন, “আমি ইচ্ছা করেছি
যে, এক ব্যক্তিকে লোকেদের
ইমামতি করতে আদেশ করে ঐ
শ্রেণীর লোকেদের ঘর-বাড়ি
পুড়িয়ে দিই, যারা জুমআতে অনুপস্থিত
থাকে।” (মুসলিম ৬৫২নং,হাকেম)
হযরত আবূ হুরাইরা (রাঃ) ও ইবনে উমার (রাঃ)
কর্তৃক বর্ণিত, তাঁরা শুনেছেন, আল্লাহর
রসূল (সাঃ) তাঁর মিম্বরের কাঠের উপর
বলেছেন যে, “কতক সম্প্রদায়
তাদের জুমুআহ ত্যাগ করা হতে অতি
অবশ্যই বিরত হোক, নতুবা আল্লাহ
তাদের অন্তরে অবশ্যই মোহ্র
মেরে দেবেন। অতঃপর তারা অবশ্যই
অবহেলাকারীদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে
যাবে।” (মুসলিম, সহীহ ৮৬৫ নং, ইবনে
মাজাহ্, সুনান)
হযরত আবুল জা’দ যামরী (রাঃ) হতে
বর্ণিত, নবী (সাঃ) বলেন, “যে ব্যক্তি
বিনা ওজরে তিনটি জুমুআহ ত্যাগ করবে
সে ব্যক্তি মুনাফিক।” (ইবনে খুযাইমাহ্,
সহীহ, ইবনে হিব্বান, সহীহ, সহিহ
তারগিব ৭২৬নং)
হযরত জাবের বিন আব্দুল্লাহ্ (রাঃ) কর্তৃক
বর্ণিত, তিনি বলেন, একদা নবী (সাঃ)
জুমআর দিন খাড়া হয়ে খুতবা দানকালে
বললেন, “সম্ভবত: এমনও লোক
আছে, যার নিকট জুমুআহ উপস্থিত হয়;
অথচ সে মদীনা থেকে মাত্র এক
মাইল দূরে থাকে এবং জুমআয় হাযির হয়
না।” দ্বিতীয় বারে তিনি বললেন,
“সম্ভবত: এমন লোকও আছে যার
নিকট জুমুআহ উপস্থিত হয়; অথচ সে
মদীনা থেকে মাত্র দুই মাইল দূরে
থাকে এবং জুমআয় হাজির হয় না।” অতঃপর
তৃতীয়বারে তিনি বললেন, “সম্ভবত:
এমন লোকও আছে যে মদীনা
থেকে মাত্র তিন মাইল দূরে থাকে এবং
জুমআয় হাজির হয় না তার হৃদয়ে আল্লাহ
মোহ্র মেরে দেন।” (আবূ য়্যা’লা,
সহিহ তারগিব ৭৩১নং)
হযরত ইবনে আব্বাস (রাঃ) বলেন, “যে
ব্যক্তি পরপর ৩ টি জুমুআহ ত্যাগ করল,
সে অবশ্যই ইসলামকে নিজের
পিছনে ফেলে দিল।” (ঐ, সহিহ
তারগিব৭৩২নং)

Thanks All

Visit Now My Download website

click here
5 months ago (7:26 am) 444 views
Report

About Author (2)

Author

something is worg!

Leave a Reply

You must be Logged in to post comment.

Related Posts

Copyright © WizBD.Com, 2018-2019