Search Any Post Of WizBD.Com
 HomeEducational Guidelinesপাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে চাঞ্জ পাওয়া সহজ নাকি কঠিন

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে চাঞ্জ পাওয়া সহজ নাকি কঠিন

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে চাঞ্জ পাওয়া কি সহজ নাকি কঠিন এই বিষয়টি জানার জন্য আপনাকে আগে জানতে হবে আমাদের দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের আসন সংখ্যার বর্তমান পরিস্থিতি।তো চলুন শুরু করা যাক:

আমাদের দেশে প্রায় প্রতিটি শিক্ষার্থীর একটি মাত্র মনে বাসনা থাকে যেনো সে একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে পারে ।কারণ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে যেমন একদিকে লেখাপড়ার মান ও ভালো থাকে ঠিক তেমনি লেখাপড়ার খরচ ও তুলনামূলক অনেক কম লাগে যেটা প্রায় সব পরিবারেই বহন করতে পারে।কিন্তু আমাদের দেশে প্রতি বছর প্রায় হাজার হাজার ছাত্রছাত্রী উচ্চমাধ্যমিক পাশ করে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয় কিন্তু সবাই চাঞ্জ পায় না । এর একটাই কারণ হলো সিট সংখ্যা সীমিত। যার কারণে দেখা যায় 1 টি মাত্র ছিটের জন্য 1000 শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষা দেয়। এই কারণে চাঞ্জ পাওয়া তুলনামূলক ভালো অনেক কম থাকে। নিচে একনজরে সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের আসন সংখ্যা দেয়া হলো:

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের আসন সংখ্যা
——————————
————-
১) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ৬৬৮৮
২) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ৪৭০৮
৩) জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ২২৫২
৪) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ৪৭২২
৫) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ২৮৫০
৬) বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় ( BUET ) ১০৩০
৭) শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ( SUST ) ১৬৫৫
৮) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ১২০০
৯) খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৮৭০
১০) রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৮৭০
১১) চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৭০০
১২) বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় ৪৭০
১৩) খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ১১০২
১৪) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ১৬৯৫
১৫) হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ১৯৫০
১৬) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ২০২২
১৭) বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় ১২৩০
১৮) বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ১৩৪০
১৯) কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ১১৩৫
২০) জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ৮২৫
২১) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয় ৪০
২২) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় ৯০
২৩) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ৩১০
২৪) শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ৫০০
২৫) সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ৪২০
২৬) বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস ( BUP ) ৯২৭
২৭) চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ২৩০
২৮) ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় ১১৯৬
২৯) ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৬২২
৩০) যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৬৫০
৩১) রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ১০০
৩২) মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৭৮৫
৩৩) নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৮৬৭
৩৪) পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৮৪০
৩৫) পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৭৭৯
৩৬) বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ৭৭৭
.
সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে মোট আসন (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া) ৪৮,৩৪৩

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে মোট আসন : ৩৯৮৯৩০
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে মোট আসন ১৮৯০০০
দেশে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ৪২ টি। এর মধ্যে ৩৭ টি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রম চলছে।
বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশের ৩৭টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও ৯৫টি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে মোট আসন সংখ্যা ৬ লাখ ৩৬ হাজার ৩৪৩টি। এর মধ্যে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে আসনসংখ্যা ৪৮ হাজার ৩৪৩টি, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ লাখ ৮৯ হাজার। সবচেয়ে বেশি আসন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে কলেজগুলোর আসন প্রায় ৪ লাখ।
.
এছাড়াও মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে আসন আছে ৪,৩৪৪ টি ।

এখন আসি কিভাবে আপনি একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে চাঞ্জ পেতে পারেন:

উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার পর প্রায় 3-4 মাস সময় পাওয়া যায় ভর্তি পরীক্ষার প্রিপারেশন নেয়ার জন্য ।এই সময় টা যে সুন্দর ভাবে গুছিয়ে নিয়ে সময়ের সৎ ব্যবহার করে প্রিপারেশন নেয় সেই একমাত্র চাঞ্জ পায়। ভর্তি পরীক্ষায় প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয় এ সব থেকে বেশি প্রশ্ন করে উচ্চমাধ্যমিক বই থেকে। তাই যারা ভালো করে উচ্চমাধ্যমিক বইগুলো ভালো করে পরে তারা অনেকটা এগিয়ে থাকে অন্যান্য শিক্ষার্থীদের থেকে।

*প্রথমেই আপনাকে সময়ের সৎ ব্যবহার করে সময় কে কাজে লাগাতে হবে।একটু সময় ও বাজে কাজে নষ্ট করা যাবে না।

*আপনি প্রথমে ঠিক করুন কোন বিভাগে আপনি পরীক্ষা দিবেন।সেই বিভাগে কি কি আসে সবগুলো কিছু সময় নিয়ে গবেষণা করুন। দরুন আপনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ ইউনিটে পরীক্ষা দিবেন।তাহলে গ ইউনিটে যা যা বিষয়ে থাকে ( বাংলা,ইংরেজি, হিসাববিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা, ফিন্যান্স) সব বিষয়ের বিগত প্রশ্ন গুলো নিয়ে একটু গবেষণা করুন। কোন কোন অধ্যায় থেকে বেশি ,কোন কোন অধ্যায় থেকে কম প্রশ্ন আসছে সব কিছু সময় নিয়ে গবেষণা করুন।কারণ দেখা গেছে যে প্রায় 50% প্রশ্ন করা হয় এই বিগত বছরের প্রশ্ন থেকে।তাই আপনি যদি সব গুলো প্রশ্ন ভালো করে বিশ্লেষণ করতে পারেন তাহলে আপনার কাছে অনেকটা সহজ হয়ে যাবে।

*তারপর আসুন আপনার GPA নিয়ে।প্রায় বেশির ভাগ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফল যাচাই করে। আপনি আপনার gpa এর উপর ভিত্তি করে ভর্তির ফরম সংগ্রহ করতে পারবেন।এছাড়াও
আপনার gpa এর উপর একটি নাম্বার আপনার ভর্তি পরীক্ষায় থাকে ।আপনার যদি gpa ভালো থাকে তাহলে আপনি অনেকটা এগিয়ে থাকবেন।

*এবার চলুন আপনার 3-4 মাসের কোর্স।উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দেয়ার পর অনেক কোচিং সেন্টার আছে যারা আপনাকে অনেক প্রলোভন দেখাবে।তাদের তা অনেক ভালো,তাদের কোচিং এ পড়লে সিউর চাঞ্জ, সব থেকে বেশি তাদের স্টুডেন্ট চাঞ্জ পেয়েছে ইত্যাদি ইত্যাদি। আপনি যদি আর্থিকভাবে সচ্ছল হন তাহলে আপনি যেকোনো একটি ভালো কোচিং এ ভর্তি হন।কারণ এগুলোতে ভর্তি হতে হলে আপনাকে 20 হাজার থেকে 30 হাজার টাকা দিতে হবে।যা অনেকের পক্ষে সম্ভব নয়।যাইহোক আপনি ভর্তি হলেন ।এরপর আপনাকে দিনে প্রায় 8 থেকে 10 ঘন্টা পড়তে হবে। আপনি প্রতিদিন সবগুলা বই পড়বেন। প্রথম দেড় মাস আপনি সবগুলা বই পড়ে শেষ করবেন ।সাথে সাথে কোচিং এ অনেক বই সাজেস্ট করে সেগুলোও পড়তে পারেন। তারপরের এক মাস আপনাকে প্রাকটিস করতে হবে।প্র্যাক্টিস করলে আপনার ভুল গুলা ধরা পড়বে এবং আপনি সেটা বুঝতে পারবেন আর সমাধান ও করতে পারবেন। তারপরের আধা মাস মানে 15 দিন আপনি নিজেকে যাচাই করার জন্য বিগত বছরের প্রশ্ন গুলার উপর পরীক্ষা দিবেন। এতে আপনি বুঝতে পারবেন কত টুকু আপনার প্রিপারেশন হয়েছে।

ইনশাল্লাহ উপরের সব কিছু যদি আপনি করতে পারেন তাহলে আপনার কাছে চাঞ্জ পাওয়া অনেক সহজ হয়ে যাবে।
আপনার সফলতা কামনা করে এখানেই শেষ করলাম।

4 months ago (8:10 am) 464 views
Report

About Author (67)

Author

নিজে শিখুন এবং অন্যকে শিখতে সাহায্য করুন

Leave a Reply

You must be Logged in to post comment.

Related Posts

Copyright © WizBD.Com, 2018-2019