Search Any Post Of WizBD.Com
 HomeOnline Earningযেভাবে শুরু করতে পারেন কন্টেন্ট রাইটিং

যেভাবে শুরু করতে পারেন কন্টেন্ট রাইটিং

আস্সালামু-আলাইকুম
আজ আমি আপনাদের মাঝে কথা বলবো যে “কিভাবে আপনি কন্টেন্ট রাইটিং শুরু করতে পারেন”?
শুরু করার আগে চলুন একটু জেনে নেয়া যাক কন্টেন্ট রাইটিং আসলে কি ?
কন্টেন্ট রাইটিং হলো আর্টিকেল রাইটিং। আরো সহজ ভাষায় বলতে গেলে কন্টেন্ট রাইটিং হলো কোনো বিষয়ের উপর নিজের থেকে লেখালেখি করা।এটা হতে পারে আপনার নিজস্ব কোনো ওয়েবসাইট এ লেখা লেখি করা বা অন্যের ব্লগ বা ওয়েবসাইট এ নিজের থেকে কিছু লেখা লেখি করা।এছাড়াও ফ্রিল্যান্স রাইটার হিসেবেও কোনো কোম্পানির হয়ে লেখা লেখি করা।একজন প্রফেশনাল কন্টেন্ট রাইটারের অনলাইন মার্কেট প্লেসে অনেক চাহিদা রয়েছে।বর্তমানে প্রতিদিন প্রায় হাজারো ওয়েবসাইট লন্স হচ্ছে। এবং সেই ওয়েবসাইট এ লেখা লেখির জন্য অনেক প্রফেশনাল কন্টেন্ট রাইটারদের নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।তাই আপনি যদি এই স্কিল টি ভালোমতো আয়ত্ত করতে পারেন তাহলে অনেক সুযোগ-সুবিধা আপনার জন্য অপেক্ষা করছে।তাই আজ আমি এখানে বলবো কিভাবে আপনি কন্টেন্ট রাইটিং শুরু করতে পারেন এবং একজন ফ্রিল্যান্স রাইটার হিসেবে অনলাইনে একটি ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে পারেন।

ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানিয়ে লেখালেখি করা : কন্টেন্ট রাইটিং করার জন্য আপনি নিজের জন্য একটি ব্লগ সাইট বানিয়ে নিতে পারেন।বর্তমানে প্রায় অনেক তরুণ-তরুণীরা নিজের জন্য একটি ব্লগ সাইট বানিয়ে নিজের মতো লেখা লেখি করছে। ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানানোর জন্য আপনি দুইটি উপায় অবলম্বন করতে পারেন।প্রথমত ডোমেইন,হোস্টিং কিনে ।এবং দ্বিতীয়ত সাবডোমেইন ব্যবহার করে।আমি আপনাকে সাজেস্ট করবো দ্বিতীয়টি।কারণ আপনি একজন বিগেনার। বিগেনার হিসেবে আপনি প্রথমে সাবডোমেইন ব্যবহার করে শুরু করেন। ওয়ার্ডপ্রেস বা গুগলের ব্লগার ব্যবহার করে সহজেই আপনি একটি ফ্রি সাইট বানিয়ে নিতে পারেন।যার জন্য কোনো টাকা দিতে হবে না। তারপর প্রফেশনাল হলে আপনি ডোমেইন,হোস্টিং কিনে শুরু করতে পারবেন।

ফেসবুক ব্যবহার করে লেখালেখি করা : এটি একটি ওপেন সোর্স।আপনি চাইলেই এই ফেসবুক এ একটি পেজ খুলে নিজের প্র্যাক্টিস করার জন্য কন্টেন্ট রাইটিং শুরু করতে পারেন।নিজের নাম বা কোনো কিছুর নাম দিয়ে একটি ফেসবুক পেজ খুলেন এবং সেই ফেসবুক পেজের “note” অপশনে নিজের মতো কোনো বিষয়ের উপর লেখালেখি করতে পারেন। এছাড়াও বিভিন্ন পেজ বা গ্রুপে আপনি বিভিন্ন টপিক নিয়ে পোস্ট করতে পারেন।এর ফলে একদিকে যেমন আপনার লেখার গতি বাড়বে ,আরেকদিকে আপনার লেখা পড়ে অন্যকেউ অনেক কিছু জানতে পারবে।তাই আপনি একজন বিগেনার হিসেবে ফেসবুক কে বেঁছে নিতে পারেন।

নোট ভিত্তিক এপপ্স ব্যবহার করে লেখালেখি করা : আপনি যদি মনে করে থাকেন যে বিগেনার হিসেবে আপনার লেখা গুলো মানসম্মত হচ্ছে না বা আপনার আপনার লেখা পড়ে অন্যরা হাসাঠাট্টা করবে তাহলে আমি বলবো আপনি এপপ্স ব্যবহার করেন। নোট করার জন্য অনেক এপপ্স আছে গুগল বা প্লেস্টোরে।যেকোনো একটি এপপ্স ডাউনলোড করে প্রতিদিন আপনি নিজের মতো কোনো বিষয় নিয়ে লেখালেখি করতে পারেন।যেহেতু এপপ্স টি আপনার মোবাইলে থাকবে সেহেতু যা ইচ্ছা তাই লিখতে পারবেন।ভুল হলেও কোনো সমস্যা নেই।

উপরোক্ত তিনটি বিষয়ের যেকোনো একটির উপর ভিত্তি করে আপনি আপনার কন্টেন্ট রাইটিং স্কিল টি ডেভেলপ করতে পারেন।বর্তমানে এই স্কিলের অনেক চাহিদা রয়েছে।একজন প্রফেশনাল কন্টেন্ট রাইটার লেখালেখি করে মাসে হাজার ডলার ইনকাম করছে।তাই আমি বলবো আপনি যেকোনো একটি বিষয় বাছাই করে আজই শুরু করে দেন।আস্তে আস্তে প্র্যাকটিস করার ফলে যখন আপনার রাইটিং স্কিল টি উন্নত হয়ে যাবে তখন আপনার কাজের কোনো অভাব হবে না।

1 month ago (6:29 pm) 288 views
Report

About Author (71)

Author

নিজে শিখুন এবং অন্যকে শিখতে সাহায্য করুন

Leave a Reply

You must be Logged in to post comment.

Related Posts

Copyright © WizBD.Com, 2018-2019